উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস
কীর্তনখোলা নদীর তীরে বরিশাল জেলার প্রাণকেন্দ্রে প্রতিষ্ঠিত অর্ধ শতাব্দীর ঐতিহ্যবাহী শান্ত, স্নিগ্ধ, গম্ভীর অথচ আনন্দময় এক বিদ্যানিকেতন ‘উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়’ জন্মলগ্নে যার নাম ছিল ‘‘ কিশোর প্রাথমিক বিদ্যালয়’’ অত:পর মহাকালের যাত্রাপথে কালের সকল বাধাবিঘœ অতিক্রম করে যুগ ধরে দাড়িয়ে থাকা স্কুলটি কিশোর যৌবন পেরিয়ে আজ প্রৌঢ়ত্বে পড়েছে। আনুমানিক ১৯৫২ খ্রীষ্টব্দে  চট্টগ্রাম ধর্মপ্রদেশের পরম শ্রদ্ধেয় বিশপ লারোজ, সি.এস.সি এর অধীনস্থ শ্রদ্ধেয় ফাদার পিকার্ড , সি.এস.সি ফাদার ওবে, সি.এস.সি কয়েকজন ধর্মপ্রাণ প্রগতিশীল ব্যক্তিদের নিয়ে  বরিশাল অঞ্চলের ঘরে ঘরে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেবার এক সময়োপযোগী বাস্তবমুখী পরিকল্পনা হাতে নেন। তাদের ঐকান্তিক প্রচোষ্টায় ১৯৫৩ খ্রীষ্টাব্দে ৫নং সদর রোডে প্রায় ৮০{আশি) জন ছাত্র নিয়ে প্রথম গড়ে উঠে-‘‘ কিশোর প্রাথমিক বিদ্যালয়’’ যার উদ্দেশ্য ছিল বিভিন্ন স্থান হতে আগত বরিশালে বসবাসরত খ্রীষ্টান আন্যান্য  ছাত্রদের শিক্ষিত করা  এবং বাংলার কৃষ্টি সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করা। তখন প্রধান শিক্ষক ছিলেন ব্রাদার কার্ডিনাল, সিএসসি। এই মহান উদ্দেশ্যকে  সামনে রেখেই বিদ্যালয়টি ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে। ১৯৫৭ খ্রীষ্টাব্দের দিকে কিশোর প্রাথমিক বিদ্যালয়টি স্থানান্তরিত করে নবগ্রাম রোড় নিয়ে যাওয়া হয়।  স্থান পরিবর্তন হওয়ার সাথে সাথে স্কুলটির নামও পরিবর্তন করে রাখা হয় -‘‘সেন্ট পলস্ প্রাথমিক বিদ্যালয়’’ তখন প্রধান শিক্ষক ছিলেন ব্রাদার গ্রামো, সিএসসি। তখন ছাত্র সংখ্যা  ছিল প্রায় ৫০০(পাঁশ শত) এখানেও ছাত্রদের স্থান সংকুলান হচ্ছিল না, বিশেষ করে উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রদের।  অত:পর চিন্তা- ভাবনার পর  ১ম ২য় শ্রেণী প্রভাতি বলিকা বিদ্যালয়ের সাথে এবং ৩য়  - ৮ম শ্রেণী প্রভাতীর প্রাঙ্গনে পৃথকভাবে সেন্ট পলস্ নামে ছাত্ররা পড়াশুনা করে ৫নং সদর রোড়ে ‘প্রভাতী বালিকা বিদ্যালয়ে’ সেখানে মেয়েদের ছুটির পর ছেলেদের ক্লাশ শুরু হত। তখন প্রভাতী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন সিষ্টার রানী, সিএসসি এবং সেন্ট পলস্ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন ব্রাদার ব্যাপ্টিষ্ট, সিএসসি। এভাবেই বেশ কয়েক বছর একই  স্থানে বিদ্যালয় দু’টির সকল কার্যক্রম চলতে থাকে।
পরবর্তীতে বিদ্যালয়টির নাম  পরিবর্তন করে বাংলা নাম রাখার প্রস্তাব আসে এবং  অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষক বাবু পঞ্চানন ঘোষের প্রস্তাবিত ‘উদয়ন’ নামটি সবার দৃষ্টি কেড়ে নেয়। তাই অনেক যুক্তিতর্কের মাধ্যমে বিদ্যালয়ে নতুন নাম রাখা হয় ‘উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়’ এই বিদ্যালয়টির প্রথম থেকে যারা প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন তারা হলেন, ব্রাদার কার্ডিনাল, সিএসসি, সিষ্টার রাণী, সিএসসি, ব্রাদার মাভেন ব্যাপ্টিস্ট, সিএসসি, ব্রাদার হ্যামেন ,সিএসসি, ব্রাদার জেমস, সিএসসি, ব্রাদার মার্সেল ,সিএসসি, মি: এন্ডু বিশ্বাস, ব্রাদার সিলবেস্টার রোজারিও,সিএসসি, মি: পলিনুস গুদাভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসাবে ছিলেন মি: রাজেন্দ্র নাথ রায়, মি: রুপচান বাড়ৈ এবং বর্তমানে আছেন ব্রাদার আলবার্ট রতœ, সিএসসি। উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বর্তমানে  প্রাথমিক শাখায় ৯৪৩ জন এবং মাধ্যমিক শাখায় ১১২২ মোট  ২০৬৬ জন ছাত্র অধ্যায়ন রত আছে। এমপিও এবং চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের সংখ্যা প্রায় ৪২  এবং অফিস সহকারী দপ্তরীদের সংখ্যা প্রায় ১৪জন।  এই প্রতিষ্ঠানটি দুই বার জাতীয় শ্রেষ্ঠ পুরুস্কার পেয়েছে। বিদ্যালয়েটিতে এস.এস.সি, জে.এস.সি এবং সমাপর্নী পরীক্ষায় ৯৯% এর বেশী শিক্ষার্থীরা  পাশ করে থাকে। ‘উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি’  প্রতিষ্ঠার পর থেকে শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় এবং বর্তমানে দক্ষিণ বাংলার  বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শ্রেষ্ঠ স্থান অধিকার করে আছে।
Home overview
Urgent News Welcome to Udayan Secondary School, Barisal. Thanks for visiting this site. Your good comments will be appreciated. Update news goes here. Udayan Secondary School starts at 8:15 am and ends at 1:00 pm from Monday to Thursday & Saturday. On Sunday starts at 8:30 am. Headmaster, Br. Samuel Sabuj Bala, CSC joined on 1st August 2018 & Br. Albert Ratno, CSC has been transferred to Dhaka. Most Rev. Bishop Lawrence Subrato Howlader, CSC Chairman of School Managing Committee has introduced new Headmaster on 28th July 2018.
EIIN NO-100739
Copyright © 2015 by "Udayan Secondary School, Barisal"  ·  All Rights reserved
WYSIWYG Web Builder